আজ জন্মস্থানে যাচ্ছে অলিম্পিক

২০০৪ অলিম্পিক

উৎপল শুভ্র

২১ জুলাই ২০২১

আজ জন্মস্থানে যাচ্ছে অলিম্পিক

অলিম্পিয়াতে ঢুকছেন দুজন দর্শনার্থী, খ্রিস্টপূর্ব ৭৭৬ অব্দে এখানেই শুরু হয়েছিল অলিম্পিক। ছবি: গেটি ইমেজেস

উদ্বোধনের চার দিন পর সত্যিকার অর্থে ঘরে ফিরছিল অলিম্পিক। যিশুখ্রিষ্টের জন্মের ৭৭৬ বছর আগে যেখানে অলিম্পিকের জন্ম, এথেন্স থেকে কয়েক শ কিলোমিটার দূরের সেই অলিম্পিয়াতে বসেছিল শটপুট। জন্মস্থানকে সম্মান দেখাতেই সেখানে এই একটি মাত্র খেলার আয়োজন। 

প্রথম প্রকাশ: ১৮ আগস্ট ২০০৪। প্রথম আলো

আধুনিক অলিম্পিকের ঘরে ফেরা হয়ে গেছে, এবার অলিম্পিক যাচ্ছে তার আসল জন্মস্থানে। এথেন্স অলিম্পিক ২০০৪ উদ্বোধনের চার দিন পর অলিম্পিক গেমস সত্যিকার অর্থে ঘরে ফিরছে আজ। যিশুখ্রিষ্টের জন্মের ৭৭৬ বছর আগে যেখানে অলিম্পিকের জন্ম, এথেন্স থেকে কয়েক শ কিলোমিটার দূরের সেই অলিম্পিয়াতে আজ শটপুট। জন্মস্থানকে সম্মান দেখাতেই সেখানে এই একটি মাত্র খেলার আয়োজন। 

‘ওয়ার্ল্ড হেরিটেজ সাইট’— এ কারণে শুধু শটপুট ছোড়ার বৃত্তটাই আঁকা হয়েছে, হাত দেওয়া হয়নি আর কিছুতেই। টিকিট নিয়ে কাড়াকাড়িতে যে ২০০ জন সাংবাদিক জয়ী হয়েছেন, তাঁদের বসার জন্য কোনো চেয়ার-টেবিল থাকছে না। ঘাসের ঢালে বসতে হবে তাঁদের, ১৫ হাজার দর্শককেও তা-ই। প্রাচীন অলিম্পিকের জয়ীদের মতো আজকের জয়ীরাও শুধু মাথায় অলিভ পাতাই পাবেন আজ, পদকের জন্য অপেক্ষা করতে হবে আগামী পরশু অ্যাথলেটিকস শুরুর দিন পর্যন্ত। 

শটপুটে যাঁরা জিতবেন, তাঁদের চেয়েও সেই দিনটির জন্য অধীর অপেক্ষায় আছে আমেরিকা। সুইমিংপুল থেকে যা পাওয়ার কথা ছিল, তা পাওয়া যায়নি। বয়স মাত্র ১৯, তাই আগামী অলিম্পিকেও মাইকেল ফেলপসকে নিয়ে এমন একটা শোরগোল উঠবে, তবে আপাতত মার্ক স্পিৎজ যে তার জায়গাতেই থাকছেন, নিশ্চিত হয়ে গেছে তা।

কেবলমাত্র শটপুট ইভেন্টই আয়োজিত হয়েছিল অলিম্পিয়াতে। ছবি: গেটি ইমেজেস

ছেলেদের ৪০০ মিটার ফ্রি স্টাইল রিলেতে কোত্থেকে এসে সোনা নিয়ে গেছে দক্ষিণ আফ্রিকা। এর সঙ্গে বাস্কেটবলের ধাক্কা। মাইকেল জর্ডান-ম্যাজিক জনসনদের দলকে ‘ড্রিম টিম’ বলাটা ঠিক ছিল, এবারের ‘অনভিজ্ঞ’ দলকে আমেরিকানরাও তা বলছে না। তাই বলে পুয়ের্তো রিকোর কাছে হারতে হবে?

এসব হতাশার খবর আসছে আর অ্যাথলেটিকসের জন্য অপেক্ষার প্রহর আরও দীর্ঘ মনে হচ্ছে আমেরিকানদের কাছে। সেই প্রথম দিন থেকেই পদক তালিকায় সবার ওপরে জ্বলজ্বল করছে চীনের নাম। চীনা সাংবাদিকরা সারাক্ষণই ‘চাই চু’ বলে চেঁচামেচি করছেন। তাঁদেরই একজন জিন লিং হাসতে হাসতে বললেন, ‘একটু আনন্দ করে নিই। সব অলিম্পিকেই আমরা তা-ই করি। ডাইভিং-শ্যুটিং-ভারোত্তোলন থাকে শুরুতে, আমরাও পদক তালিকার শীর্ষে থাকি। এরপর তো শুধু টেবিল টেনিসই থাকবে আমাদের, বাকিগুলোতে তো শুধুই আমেরিকা।’

‘শুধুই আমেরিকা’ থাকবে না, তবে শেষ পর্যন্ত পদক তালিকায় প্রথম নামটি যে তা-ই হবে, এ নিয়ে কোনো সংশয় নেই। এখন নেই, ভবিষ্যতেও থাকবে না।

একদিক থেকে তো বাংলাদেশের মতোই! অলিম্পিকে শুধু অংশ নেওয়ার জন্যই অংশ নেওয়া। এখন যেমন, ভবিষ্যতেও তা-ই থাকবে। 

সম্পর্কিত বিষয়:

শেয়ার করুনঃ
আপনার মন্তব্য
আরও পড়ুন
Add
Ispahani Mirzapore Tea
×