কারা থাকছেন এবারের বিশ্বকাপের ধারাভাষ্যে?

উৎপলশুভ্রডটকম

১৫ অক্টোবর ২০২১

কারা থাকছেন এবারের বিশ্বকাপের ধারাভাষ্যে?

২০২১ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের সম্প্রচার ছাড়িয়ে যাবে আগের সবকিছুতে। এমনই দাবি আইসিসির। ২০০টিরও বেশি দেশে প্রায় দশ হাজার ঘণ্টার কাভারেজে সর্বাধুনিক প্রযুক্তির ব্যবহারের কথাও সাড়ম্বরে জানানো হয়েছে। সঙ্গে টেলিভিশনে খেলা সম্প্রচারের অপরিহার্য অনুষঙ্গ ধারাভাষ্যকারদের নামও।

'এমন কিছু, যা কেউ দেখেনি আগে।'

প্রতিটা আসরের আগেই ওই কথাটা শোনা যায় খুব। শোনা গেল আবারও। কাল বাদে পরশু শুরু হচ্ছে বিশ্বকাপ, তার আগে এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে আইসিসি জানাল, এবার বিশ্বকাপের সম্প্রচার ছাড়িয়ে যাবে আগের সব আসরকে।

তা কী কী থাকছে ২০২১ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের সম্প্রচারে? আইসিসি জানাচ্ছে, এবার প্রতিটা ম্যাচে থাকবে কমপক্ষে ৩৫টি ক্যামেরা। আর সব ধরনের লজিস্টিক্যাল সাপোর্ট পাওয়া যাবে এনইপ ব্রডকাস্ট সল্যুশনসের মাধ্যমে।

২০০টিরও বেশি দেশে টিভি আর ডিজিটাল প্ল্যাটফর্ম মিলিয়ে ১০ হাজার ঘণ্টার কাভারেজ। গত এক দশকের মতো এবারও সম্প্রচারকারী প্রতিষ্ঠান হিসেবে থাকছে স্টার স্পোর্টস। ভারতে টেলিভিশন সম্প্রচারের দায়িত্ব থাকছে তাদের কাছেই। বাংলাদেশ টেলিভিশন সম্প্রচার-স্বত্ব পেয়েছে বিটিভি, জিটিভি ও টি-স্পোর্টস। আইসিসির সঙ্গে ফেসবুক জুটি গড়েছে কয়েক বছর আগেই, এবারও বিশ্বকাপের ম্যাচগুলোর হাইলাইটস দেখা যাবে সেখানে, সঙ্গে ইনস্টাগ্রাম রিল তৈরির জন্যে এবার আলাদা একটা টিমই তৈরি করেছে আইসিসি।

প্লেয়ার ট্র‍্যাকিং, লাইভ-ফিল্ড-প্লটের মতো প্রযুক্তি দেখা যাবে কুইডিক ট্র‍্যাকারের সৌজন্যে। আর বিশ্বকাপ এলেই যে নতুন প্রযুক্তি আমদানির যে ধারা, সে ধারায় ক্রিকেটে প্রথমবারের মতো দেখা যাবে ব্যাট-ট্র‍্যাকিং প্রযুক্তিও। বল-ট্র‍্যাকিং আর এজ ডিটেকশনের মতো এই সার্ভিসটাও সরবরাহ করবে হক-আই ইনোভেশন। সব ম্যাচে অবশ্য নয়, বাছাইকৃত কিছু ম্যাচে দেখা যাবে এই প্রযুক্তির ব্যবহার। আর সুপার টুয়েলভের নির্দিষ্ট কিছু ম্যাচে দেখা যাবে চতুর্মাত্রিক রিপ্লেও। গত কয়েক আসরের মতো মাঠজুড়ে ঘুরে বেড়াতে দেখা যাবে স্পাইডারক্যামও।

প্রতিটা আসরের আগেই ওই প্রশ্নটা থাকেই, ধারাভাষ্য প্যানেলে থাকছেন কারা? নামগুলো জেনে নিন। নাসের হুসেইন, হার্শা ভোগলে, ইয়ান বিশপ, নাতালি গারমোন্স, সুনীল গাভাস্কার, মাইকেল আথারটন, সাইমন ডৌল, আতহার আলী খান, রাসেল আরনল্ড, আনজুম চোপড়া, মুরালি কার্তিক, বাজিদ খান, পমি মবংওয়া, প্রেস্টন মমসেন, ড্যানি মরিসন, মার্ক নিকোলাস, অ্যালান উইলকিনস্ ও নিয়াল ও'ব্রায়েন। আর এর আগে এখানে-ওখানে ধারাভাষ্য দিলেও বিশ্বকাপের ধারাভাষ্য প্যানেলে প্রথমবারের মতো যুক্ত হচ্ছেন ডেল স্টেইন, শেন ওয়াটসন ও ড্যারেন স্যামি।

বিশ্বকাপের মতো আসরে ধারাভাষ্য দেওয়াটাকে বিশাল প্রাপ্তি মানছেন ড্যারেন স্যামি ও ডেল স্টেইন দুজনই। স্টেইনের ভাষ্যটাই তুলে দেওয়া যাক, 'টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের মতো আসরে ধারাভাষ্য দেওয়ার সুযোগ পাওয়াটা বেশ সম্মানের। খুব কাছ থেকে খেলাটা দেখার সুযোগ পাচ্ছি, এ জন্যে বেশ আনন্দিত।'

আনন্দিত তো হওয়ারই কথা। সেরা আসনে বসে বিশ্বকাপ দেখার এমন সুযোগ পেলে কে না আনন্দিত হবে! 

শেয়ার করুনঃ
আপনার মন্তব্য
আরও পড়ুন
×