২৯ মে

২০১৬

প্রথম বিদেশি ক্রিকেটার হিসেবে আইপিএলে সেরা উদীয়মানের পুরস্কার পান মোস্তাফিজুর রহমান। তাঁর দল সানরাইজার্স হায়দ্রাবাদও রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরুকে ৮ রানে হারিয়ে জিতে নেয় প্রথম আইপিএল শিরোপা।

২০০০

অ্যান্টিগায় ২০১৬ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে ওয়েস্ট ইন্ডিজ ৯ উইকেট হারিয়ে ফেলেছিল ১৯৭ তুলতেই। কিন্তু শেষ ব্যাটসম্যান কোর্টনি ওয়ালশকে সাথে নিয়ে জয় তুলে আনেন অধিনায়ক জিমি অ্যাডামস (কোনো বাউন্ডারি ছাড়া ৪৮), ১ উইকেটে টেস্ট নিস্পত্তি হওয়ার নবম ঘটনা এটি। ম্যাচে ১১-১১০ বোলিং ফিগার নিয়েও পরাজিত দলে থাকতে হয় ওয়াসিম আকরামকে।

১৯৯৯

বিশ্বকাপের সুপার সিক্স নিশ্চিত হয়েছিল আগেই। চেমসফোর্ডে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ৪৮ রানের অঘটনের পরাজয়টা তাই তাৎক্ষণিকভাবে বড় ধাক্কা হয়ে আসেনি দক্ষিণ আফ্রিকার জন্য। তবে ইংল্যান্ডও সুপার সিক্সে উঠতে ব্যর্থ হওয়াতে দক্ষিণ আফ্রিকা সুপার সিক্স শুরু করেছিল দুই পয়েন্ট কম নিয়ে আর অস্ট্রেলিয়ার পেছনে থেকে। যদি ওপরে থাকত অস্ট্রেলিয়ার, তাহলে এজবাস্টনের সেই টাই ম্যাচটায় জয়োল্লাস দক্ষিণ আফ্রিকাই করত।

১৯৬৮

প্রথম ইংলিশ ক্লাব হিসেবে বেনফিকাকে ৪-১ গোলে হারিয়ে ইউরোপিয়ান কাপ শিরোপা জেতে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড, জোড়া গোল করেন বব চার্লটন।

১৯৫৪

প্রথম নারী হিসেবে মাইল রেস পাঁচ মিনিটের কমে দৌড়ান ব্রিটিশ দৌড়বিদ ডায়ান লেদার (৪:৫৯.৬)।

১৯০২

এজবাস্টনে প্রথম টেস্ট। আর অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ইংল্যান্ড যে একাদশ নিয়ে নেমেছিল, তাঁদের সবার নামের পাশেই প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে সেঞ্চুরি ছিল। উইলফ্রেড রোডসের বোলিং তোপে প্রথম ইনিংসে মাত্র ৩৬ রানে অলআউট হয় অস্ট্রেলিয়া, কিন্তু তিনদিনের টেস্টে অস্ট্রেলিয়াকে দ্বিতীয়বার অলআউট করার জন্য পর্যাপ্ত সময় পায়নি ইংল্যান্ড।

১৮৩৯

ন্যাট টমসনের জন্ম। টেস্ট ক্রিকেটে প্রথম ব্যাটসম্যান হিসেবে আউট হয়েছিলেন, অমর হয়ে থাকার জন্য এই রেকর্ডই তো যথেষ্ট। ইংল্যান্ডের অ্যালেন হিলের বলে বোল্ড হওয়ার আগে করেছিলেন ১ রান, প্রথম ডাকের রেকর্ড হাতছাড়া (!) হয়ে গিয়েছিল অল্পের জন্য। পরে ওই টেস্টেই যা হয়েছিল নেড গ্রেগরির। কাকতালীয়ভাবে, নেডের জন্মও একই সালের একই দিনে!

অনুসন্ধান করুন