মেসি `ফ্রি` খেলবেন বলে আশায় ছিলেন লাপোর্তা

দ্য অ্যাথলেটিক

৮ অক্টোবর ২০২১

মেসি `ফ্রি` খেলবেন বলে আশায় ছিলেন লাপোর্তা

বার্সেলোনার সঙ্গে দীর্ঘ ২১ বছরের সম্পর্ক চুকিয়ে গত আগস্টেই পিএসজিতে পাড়ি জমিয়েছেন লিওনেল মেসি। এতদিন বাদে হুয়ান লাপোর্তা জানালেন মেসির কাছে তাঁর অদ্ভুত এক চাওয়ার কথা। তিনি নাকি আশা করেছিলেন, লিওনেল মেসি বার্সেলোনায় `বিনামূল্যে` খেলবেন!

সব চুকে-বুকে গেছে। এমন সময় স্পেনের ক্লাব বার্সেলোনার প্রেসিডেন্ট হুয়ান লাপোর্তা বলছেন, তাঁর আশা ছিল যে, লিওনেল মেসি থেকে যাবেন। ‘বিনা পয়সায়’ বা ‘ফ্রি’-তে খেলতে রাজি হবেন।

আর্জেন্টাইন ফুটবলার মাস দুয়েক আগে কাতালান ক্লাবটি ছেড়ে গেছেন। সর্বকালের অন্যতম সেরা এই খেলোয়াড় যোগ দিয়েছেন ফ্রান্সের প্যারিস সেন্ট-জার্মেইয়ে। 

স্প্যানিশ একটি রেডিওতে দেওয়া সাক্ষাৎকারে লাপোর্তা বলেছেন, ‘ওকে (মেসিকে) আমি এতটাই ভালোবাসি যে, ওর ওপর ঠিক রাগ করতে পারি না। তবে এমন সময়ও আসে, যখন আর কিছু করার থাকে না। এ নিয়ে আমাদের দুই পক্ষেই হতাশা আছে।’

লাপোর্তা আরও বলছেন, ‘ও থেকে যাক এমন চাওয়া তো ছিলই। তবে আমরা যে প্রস্তাব দিয়েছিলাম, তাতে আমাদের ওপর চাপ ছিল। সে-ও জানত, এখানে না থাকতে পারলে পিএসজিতে চলে যাবে।’

চলে গেলেও মেসির জন্য ভালোবাসার প্রকাশ আছে লাপোর্তার কথায়, ‘ইতিহাসে সে বার্সেলোনার সেরা খেলোয়াড় হিসেবেই বিবেচিত হবে। আমি চাই, ও সেখানেই থাকুক। ও বার্সেলোনা ছাড়ার আগেই আমরা বুঝতে পারছিলাম যে, তার কাছে পিএসজির প্রস্তাব আছে। আমরা জানতাম, প্রস্তাবটা বিরাট।’ বার্সার কোচের ওপ্প্রে আকাশসমান চাপ

এর সঙ্গে একটু নির্দিষ্ট করে মনের চাওয়াটা প্রকাশ করলেন লাপোর্তা। যে প্রকাশে আছে মেসিকে বার্সার দেওয়া সবকিছুর প্রতিদানে বিনে পয়সায় খেলার জন্য রাজি হয়ে যাওয়ার প্রত্যাশা, ‘আমি আশা করেছিলাম যে সে মন বদলাবে, বলবে, “আমি ফ্রিতে খেলব”। আমি যতটা বুঝি, লা লিগাও এতে রাজি হয়ে যেত। কিন্তু মেসির মাপের কাউকে তো মুখ ফুটে আমরা এমনটা বলতে পারি না।’

মেসি ’ফ্রি’তে খেলতে রাজি হলে সেটা অভূতপূর্ব এক ঘটনাই হতো। আগের চুক্তিতে বার্সেলোনায় মৌসুমে ৪০ মিলিয়ন ইউরো আয় করতেন মেসি, বার্সার বর্তমান অর্থনৈতিক অবস্থার পেছনে ওই খরচেরও বেশ বড় প্রভাব আছে।

এই তো বুধবারই বার্সার প্রধান নির্বাহী ফেরান রেভের্তার জানালেন, ক্লাবটি এই বছরের গোড়ায় টেকনিক্যালি 'দেউলিয়া’ হয়ে গিয়েছিল। গেল অর্থনৈতিক বছরে তাদের লোকসানের পরিমাণ ছিল ৪৮১ মিলিয়ন ইউরো। ধার-দেনা মিলিয়ে ভবিষ্যৎ দায় ১.৩৫ বিলিয়ন ইউরো। 

মাঠেও পরিস্থিতি অনুকূলে না। কোচ রোনাল্ড কোম্যানের ওপর চাপ ক্রমশ বাড়ছে। তার দল এখন পয়েন্ট টেবিলের নয় নম্বরে। ওসাসুনা আর রায়ো ভায়েকানোর চেয়েও পিছিয়ে আছে জায়ান্ট ক্লাব বার্সেলোনা। এমনকি চ্যাম্পিয়নস লিগেও তারা তাদের ইতিহাসের সবচেয়ে বাজে শুরু করেছে। বায়ার্ন মিউনিখ ও বেনফিকার কাছে ৩-০ গোলের ব্যবধানে হেরেছে। 

নেইমারকে সই করানোর বিষয়ে কী বলছেন লাপোর্তা?

একই সাক্ষাৎকারে লাপোর্তা জানান, ‘নেইমার? এই গ্রীষ্মে আমাদের সীমাবদ্ধতার ব্যাপারটা আমরা বুঝি। আমরা নেইমারের জন্য চেষ্টা করেছিলাম। জানতে পেরেছিলাম, ও আর সেখানে থাকতে চায় না। ক্লাব ছাড়তে চায়। নেইমারকে সই করানোর চেষ্টা করেছিলাম। কিন্তু ওরা তাকে পিএসজিতে থাকতে রাজি করিয়ে ফেলল।’এই জুটিটা আরেকবার বার্সাতেও দেখা যেতে পারত।

বার্তোমেউ বোর্ড যে বার্সাকে আপাদমস্তক দেনায় ডুবিয়ে রেখে গেছে, তাদের বিরুদ্ধে ডিসিপ্লিনারি অ্যাকশন নেওয়ার সম্ভাবনার কথাও বলেছেন লাপোর্তা। এই বছরের গোড়ায় আগের বোর্ডের বিশৃঙ্খলার কারণে ঘরের ঝামেলা বাইরে ছড়িয়ে পড়ার অবস্থায় পৌঁছেছিল। ‘আগের বোর্ডের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার ব্যাপার তো?’ লাপোর্তা বলেছেন, ‘সবকিছুর সম্ভাবনা আছে। কোনো সিদ্ধান্তে পৌঁছানোর আগে আমরা তদন্তের ফলের দিকে নজর দেব।’ লাপোর্তা উল্লেখ করলেন, তারা পেদ্রি, আনসু ফাতি ও গাভির মতো তরুণ প্রতিভার সঙ্গে চুক্তি বাড়ানোর কাজ করছেন। 

আর্থিক সমস্যা বার্সেলোনার গ্রীষ্মকালীন পরিকল্পনায় যে প্রভাব ফেলেছে

অর্থনৈতিক সমস্যাটা বাজে রকম। তাই মেসির সঙ্গে নতুন চুক্তি করতে পারেনি বার্সেলোনা। অনেক খরচ কমিয়েও তা কাজে আসেনি। দলবদলের বাজারেও বার্সার যাতায়াত সীমাবদ্ধ হয়ে পড়েছিল। পায়ে একরকম বেড়ি পড়ার মতো অবস্থা! ফি'র মাধ্যমে কেবল কেনা হয়েছে বেতিসের এমারসন রয়্যালকে। নতুন করে ট্রান্সফার উইন্ডো খুললে পরে টটেনহাম হটস্পারের কাছে রয়্যালকে বিক্রিও করে দেওয়া হয়েছে।

দলে অন্য যারা এসেছেন, সেখানেও ছিল দুর্বলতা। মেম্ফিস ডিপাই, এরিক গার্সিয়া ও সার্জিও আগেুয়েরোকে ফ্রি ট্রান্সফারে চুক্তিবদ্ধ করা হয়েছে। লুক ডি ইয়ং ও ইউসুফ দেমিরকে যথাক্রমে সেভিয়া ও র‌্যাপিড ভিয়েনা থেকে ধারে আনা হয়েছে। ক্লাবে আগে থেকে থাকা বড় অঙ্কের বেতন পাওয়া জেরার্ড পিকে, সার্জিও বুসকেতস ও জর্দি আলবাকে এইসব ট্রান্সফারের কারণে বেতন কম নিতে রাজি করানো হয়েছে। খুব বেশি বেতনের আঁতোয়ান গ্রিজমানকে তাভবর পুরনো ক্লাব অ্যাটলেতিকো মাদ্রিদের কাছে ধারে দিতে বাধ্য হয়েছে বার্সেলোনা।

শেয়ার করুনঃ
আপনার মন্তব্য
আরও পড়ুন