জাভির ছয়টি করণীয় বলে দিচ্ছেন রিভালদো

উৎপলশুভ্রডটকম

৫ নভেম্বর ২০২১

জাভির ছয়টি করণীয় বলে দিচ্ছেন রিভালদো

রিভালদো ও জাভি: যখন তাঁরা বার্সা-সতীর্থ

রোনাল্ড কোম্যানকে বরখাস্ত করার পর বার্সেলোনা এখন চলছে অন্তর্বর্তীকালীন কোচের দায়িত্বে। নতুন কোচ হিসেবে চূড়ান্ত হয়ে গেছে বার্সার `ঘরের ছেলে` জাভির নাম। দায়িত্ব নেওয়ার পর কী কী করবেন বলে একটা তালিকা নিশ্চয়ই করেছেন জাভি। একদা বার্সা-সতীর্থ সাবেক ব্রাজিলিয়ান ফরোয়ার্ড রিভালদো সাহায্যে এগিয়ে এসে ছয়টি করণীয় বলে দিচ্ছেন জাভিকে।

রিভালদো যখন ক্যারিয়ারের মধ্য গগনে, জাভি তখন উদীয়মান। বার্সেলোনায় খেলেছেন একসঙ্গে। বার্সার ঘোর দুঃসময়ে জাভিকে কোচের দায়িত্ব দিয়ে যখন উত্তরণের পথ খুঁজছে কাতালান ক্লাবটি, জাভির জন্য ছয়টি করণীয় বলে দিয়েছেন তাঁর সাবেক সতীর্থ রিভালদো। 

আর্থিক সঙ্কটের মুখে লিওনেল মেসি ক্লাব ছেড়ে যাওয়ার পর থেকে বিপদে আছে বার্সেলোনা। স্পেনের ইতিহাসের অন্যতম সফল ক্লাবটি ঘরোয়া লিগের পাশাপাশি ভুগছে ইউরোপিয়ান ক্লাব প্রতিযোগিতা চ্যাম্পিয়নস লিগেও। সাবেক বার্সা তারকা রোনাল্ড কোম্যানকে দায়িত্ব দিয়ে কাজ না হওয়াতে কাতারের আল সাদ ক্লাবের কোচের দায়িত্ব পালন করতে থাকা জাভির শরণ নেয় বার্সেলোনা।

জাভির সামনে বার্সোলেনাকে পথে ফেরানোর কঠিন চ্যালেঞ্জ। ছবি: গেটি ইমেজেস

১৯৯০ সালের শেষ দিক থেকে ২০০০-এর শুরুর দিক পর্যন্ত পাঁচ বছর রিভালদো খেলে গেছেন বার্সেলোনাতে। প্রতিটি মৌসুমেরই বার্সা শীর্ষ চারের মধ্যে থেকেছে। এর মধ্যে যে দুবার লিগ শিরোপা জিতেছে, তার পেছনে ছিল ব্রাজিলিয়ান ফরোয়ার্ড রিভালদোর প্রত্যক্ষ অবদান। 

জাভির যে ৬টি করণীয়র কথা বলছেন রিভালদো, তার প্রথমটি হলো, দলে নতুন মুখ যোগ করা। ‘জানুয়ারিতে অবশ্যই জাভিকে বার্সেলোনায় নতুন খেলোয়াড়দের সই করাতে হবে।’ রিভালদো তাঁর পরামর্শের শুরুতে বলেছেন, ‘দলকে জাগিয়ে তুলতে দুই বা তিনজন নতুন খেলোয়াড়ের দরকার। কিন্তু বর্তমান যে খেলোয়াড়েরা আছে, তাদের কাছ থেকেও জাভিকে সেরাটা বের করে আনতে হবে। খেলার স্টাইলের সাথে সবাইকে মানিয়ে তুলতে হবে এবং পুরো দলটাকে একতাবদ্ধ করতে হবে।’

গত গ্রীষ্মে বার্সা কিছু কেনাকাটা করেছিল বটে। মেমফিস ডিপাই আর সার্জিও আগুয়েরো এই মৌসুমেই ক্লাবটিতে নাম লিখিয়েছেন। ডিপাইকে নিয়ে সমস্যা নেই। কিন্তু আগুয়েরোর হৃদযন্ত্রে সমস্যা ধরা পড়ায় অন্তত আগামী তিন মাস তাঁর খেলার সম্ভাবনা নেই। 

সার্জিও আগুয়েরোকে এখনই পাবেন না জাভি। ছবি: টুইটার থেকে

পুরোনো তারকাদের সামলানোর ব্যাপার আছে। সেই সঙ্গে জাভিকে গড়ে তুলতে হবে গাভি, নিকোর মতো নতুন তারকাদের। তাতে করে দলের মধ্যে দারুণ ভারসাম্য আসবে। কিন্তু তা করতে গেলেও সতর্ক থাকতে হবে জাভিকে। রিভালদো এই তরুণদের সামলানোর পথও বাতলে দিচ্ছেন জাভিকে, ‘দলে অনেক তরুণ প্রতিভা আছে। নিজেদের মেলে ধরার স্বাধীনতা দিতে হবে তাদের। এর পাশাপাশি বার্সেলোনার অভিজ্ঞ খেলোয়াড়দের দায়িত্ব নিতে হবে, যাতে তরুণরা অতিরিক্ত চাপের মুখে ভেঙে না পড়ে।’

জাভিকে সতর্ক করে দিয়ে রিভালদো জানাচ্ছেন, ‘দল তরুণ খেলোয়াড়দের ব্যবহার করতে পারে এবং সেটাই উচিত, কিন্তু ক্যারিয়ারের শুরুতেই তাদের ওপর ভরসা করে থাকলে চলবে না।’ 

জাভির যে ছয়টি করণীয়র কথা বলছেন রিভালদো, পয়েন্ট আকারে দিলে তা হয় এরকম:

১. জানুয়ারিতে নতুন খেলোয়াড় কিনতে হবে।

২. বর্তমান দলের কাছ থেকে সেরাটা বের করে আনতে হবে।

৩. বার্সেলোনার স্টাইলের সঙ্গে সবাইকে মানিয়ে তুলতে হবে।

৪. কোম্যান যেটা পারেননি, সেটা হলো খেলোয়াড়দের মধ্যে সম্পর্ক তৈরি করে দলটাকে একতাবদ্ধ করে তুলতে। সেটা করতে হবে।

৫. তরুণরা যাতে নিজেদের মেলে ধরতে পারে, তাই তাদের স্বাধীনতা দিতে হবে, কিন্তু তাদের ওপর বেশি রকমের নির্ভর করা যাবে না।

৬. অভিজ্ঞ খেলোয়াড়দের সামনে থেকে ভূমিকা পালন করতে হবে এবং তাদেরই বেশি দায়িত্ব কাঁধে তুলে নিতে হবে।

গাভির মতো তরুণ প্রতিভাকে নিজেকে মেলে ধরার স্বাধীনতা দিতে হবে। ছবি: পিএ ইমেজেস
বার্সার সোনালী সময়ের অপরিহার্য এক অংশ হয়েছিলেন জাভি। জিতেছেন ২৫টি শিরোপা। ১৯৯৭ থেকে ২০১৫ পর্যন্ত তাঁর যা জয়ের গল্প, তার মধ্যে আছে আটটি লিগ শিরোপা ও চ্যাম্পিয়নস লিগের মুকুট। বার্সার হয়ে খেলেছেন ৭৬৭টি ম্যাচ। তাঁর চেয়ে বেশি ম্যাচ খেলেছেন শুধু লিওনেল মেসি। ৮৫টি গোল করেছেন, সহায়তা করেছেন আরও ১৮৫টি গোলে।

খেলোয়াড় জাভিকেও জয় করতে হয়েছে অনেক চ্যালেঞ্জ। তবে এখন যে চ্যালেঞ্জটা নিচ্ছেন তিনি, এর তুলনায় সেসব কিছুই নয়। 

সম্পর্কিত বিষয়:

শেয়ার করুনঃ
আপনার মন্তব্য
আরও পড়ুন
×