বেনফিকা-ম্যাচের আগে জাভির মেসি-টনিক

উৎপলশুভ্রডটকম

২৩ নভেম্বর ২০২১

বেনফিকা-ম্যাচের আগে জাভির মেসি-টনিক

ছবি: এএফপি

দায়িত্ব নিয়েই ক্লাবে নিয়ম-নীতির কড়াকড়ি, নিজের প্রথম ম্যাচে এসপানিওলের বিপক্ষে ১-০ গোলে জয়...বার্সায় কোচ-জাভির সূচনাটা খারাপ হয়নি। তবে আজ রাতে চ্যাম্পিয়নস লিগের পরীক্ষায় নামতে হচ্ছে তাঁকে, বেনফিকার বিপক্ষে ম্যাচটা হারলেই পড়তে হবে বিপদে। এমন কঠিন ম্যাচের আগে সাবেক-সতীর্থ লিওনেল মেসির পাঠানো বার্তা নিশ্চয়ই টনিক যোগাবে তাঁকে।

'এরই মধ্যে জাভি যেখানে খেলেছে, সেখানকার কোচ হয়েছে। একদিন ও অবশ্যই বার্সার কোচের আসনে বসবে।' নিজের এক সময়ের সতীর্থ জাভিকে নিয়ে কথাগুলো পেপ গার্দিওলা বলেছিলেন ২০১৯ সালে। কোচ হিসেবে জাভির অভিজ্ঞতা তখন মাসখানেকের। গার্দিওলার বলা সেই কথা ফলে গেছে দুই বছরের মধ্যেই; মাঠে-মাঠের বাইরের ইতিহাসের সবচেয়ে বাজে সময় পার করা বার্সার দায়িত্ব নিয়েছেন জাভি।

কোচ হিসেবে বার্সায় ফেরত এসেই ক্লাবটিতে ফিরিয়ে আনতে চেয়েছেন শৃঙ্খলা। খেলোয়াড়দের পরিচয় করিয়েছেন অনেক বাধা-নিষেধের সাথে। কয়েকটা নমুনাই দেখুন না:

১.ট্রেনিং সেশনের ৯০ মিনিট আগে প্লেয়ারদের মাঠে হাজির হতে হবে। স্টাফদের আসতে হবে তারও আধা ঘণ্টা আগে।

২. দেরি করে এলেই গুনতে হবে জরিমানা। আর ভুলের পুনরাবৃত্তি হলে জরিমানার পরিমান হবে দ্বিগুণ।

৩. অনুশীলন মাঠেই প্লেয়ারদের খাবার খেতে হবে।

৪. অনুশীলনেও ঢেলে দিতে হবে শতভাগ।

৫. মাঠের বাইরেও নিয়ন্ত্রিত জীবন যাপন করতে হবে খেলোয়াড়দের। চোখে চোখে রাখা হবে মাঠের বাইরেও।

৬. রাত জাগা যাবে না। ম্যাচের দু'দিন আগে থেকেই রাত ১২টার মধ্যে খেলোয়াড়দের ঘরে ফিরতে হবে।শুরুটা হয়েছে জয় দিয়েই। ছবি: বার্সেলোনা

জাভির এই কড়াকড়ি বার্সার সুদিন ফেরাবে কি না, সে প্রশ্নের উত্তর সময়ই দেবে। আর শুধু তো ক্লাবে শৃঙ্খলা ফেরালেই চলছে না, জাভিকে ভাবতে হচ্ছে ট্যাকটিকস আর ফর্মেশন নিয়েও। দায়িত্ব নিয়ে নিজের প্রথম ম্যাচে ১-০ গোলে জিতেছেন এসপানিওলের বিপক্ষে। বার্সার খেলায় গতি বেড়েছে যদিও, তবে নিজেদের গোলবার সামলাতে বার্সাকে বেগ পেতে হয়েছে সেদিনও।

ওই জয়ের রেশ কাটতে না কাটতেই আজ রাতে আবার চ্যাম্পিয়নস লিগের পরীক্ষায় বেনফিকার বিপক্ষে নামতে হচ্ছে জাভির বার্সাকে, প্রথম লেগে পর্তুগালের যে ক্লাবের বিপক্ষে ৩-০ গোলে হেরেছিল কাতালান ক্লাবটা।  

চ্যাম্পিয়নস লিগের নকআউট নিশ্চিত করতে আজ জিতলেই চলবে বার্সার। ঘরের মাঠে বায়ার্ন মিউনিখ ও পর্তুগালে বেনফিকার কাছে ৩-০ গোলে হারলেও ডায়নামো কিয়েভের বিপক্ষে দুটি ম্যাচই জিতেছে বার্সেলোনা। বায়ার্নের কাছে বেনফিকা হেরেছে দুই লেগেই, যে কারণে পয়েন্ট তালিকায় এখনো দ্বিতীয় স্থানে আছে বার্সেলোনা। আজ জয় পেলে এক ম্যাচ হাতে রেখেই বেনফিকার সঙ্গে তাদের ব্যবধান বাড়বে পাঁচ পয়েন্ট। অবশ্য হেরে গেলে সমীকরণটা বেশ কঠিনই হয়ে যাবে বার্সার জন্য, গ্রুপ পর্বের শেষ ম্যাচে যে বায়ার্ন মিউনিখের মুখোমুখি হতে হবে তাদের!

তবে আজকের ম্যাচে জয় পাওয়া সহজ হবে না বার্সার জন্য। আগের লেগে হারের স্মৃতি এখনো দগদগে, আর ইনজুরির কারণে সেরা দলকেও পাচ্ছেন না জাভি। আনসু ফাতি, পেদ্রি, সার্জিও আগুয়েরো, মার্টিন ব্র্যাথওয়েট, সার্জি রবার্তো নেই স্কোয়াডে। যদিও সার্জিনো ডেস্ত ও উসমান দেম্বেলেকে ফিরে পাচ্ছেন এই ম্যাচে।ম্যাচের আগে জাভিকে শুভকামনা জানিয়েছেন মেসি। ছবি: গেটি ইমেজেস

কোচ হিসেবে দায়িত্ব নিয়ে প্রথমেই জানিয়ে দিয়েছিলেন, বার্সার কোচ হিসেবে সব ম্যাচ জেতাটাই তাঁর লক্ষ্য। এই ম্যাচেও জয় ছাড়া অন্য কিছু ভাবতে চাইবেন না স্বাভাবিকভাবেই। তবে জয়-পরাজয় যা-ই হোক, বার্সালোনার ঐতিহ্য ফেরানোই তাঁর মূল কাজ। আল-সাদে কোচ হিসেবে যে তিন মৌসুম কাটিয়েছেন জাভি, সৃষ্টিশীল ফুটবল, সাথে গার্দিওলা ঘরানার তিকি-তাকায় মুগ্ধ করেছিলেন সবাইকে। অতি সম্প্রতি নিজেদের যে ফুটবল থেকে অনেকটা দূরে সরে গেছে বার্সা। জাভির জন্য কাজটা তাই সহজ হবে না মোটেই।

অবশ্য কাজটা কিছুটা হলেও সহজ হতে পারত, যদি লিওনেল মেসিকে পেতেন ক্লাবের সুদিন ফেরানোর প্রকল্পে। কিন্তু তিন মাস আগেই ২১ বছরের সম্পর্ক ছেদ করে পিএসজিতে চলে যেতে বাধ্য হয়েছেন মেসি।

তবে মাঠে খেলে জাভিকে সহায়তা করতে না পারলেও তাঁর ওপরে ঠিকই ভরসা আছে মেসির। জাভির হাত ধরে আবার আলোর দেখা পাবে বার্সেলোনা, এমনটাই মনে করছেন তিনি। মার্কাকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে জাভি সম্পর্কে মেসি বলেছেন, জাভি এমন একজন কোচ, যাঁর জানাশোনার পরিধি অনেক বিস্তৃত। এই ক্লাবটার (বার্সার) সদর-অন্দর পুরোটাই তাঁর হাতের তালুর মতো চেনা, একদম শৈশব থেকেই। তিনি বার্সেলোনাকে অনেক উঁচুতে নেবেন, অন্তত আমার মনে এ নিয়ে কোনো সন্দেহ নেই।’

বিশ্বজুড়ে ছড়িয়ে থাকা বার্সেলোনা সমর্থকদের এখন তো একটাই চাওয়া, মেসির মুখে ফুলচন্দন পড়ুক।

সম্পর্কিত বিষয়:

শেয়ার করুনঃ
আপনার মন্তব্য
আরও পড়ুন
×