মুকুটটা তাহলে জোকোভিচের মাথাতেই!

শাহরিয়ার ফিরোজ

১৪ জুন ২০২১

মুকুটটা তাহলে জোকোভিচের মাথাতেই!

ফ্রেঞ্চ ওপেন জিতে গ্র্যান্ড স্লাম শিরোপা-সংখ্যায় ফেডেরার আর নাদালের ঘাড়ে নিঃশ্বাস ফেলছেন নোভাক জোকোভিচ। ছবি: গেটি ইমেজেস

ফ্রেঞ্চ ওপেনে দ্বিতীয় শিরোপা জয়ের পথে `লাল দুর্গের রাজা` রাফায়েল নাদালকে হারিয়ে কী বার্তা দিলেন নোভাক জোকোভিচ? বয়স-ফিটনেস-ফর্ম মিলিয়ে সবচেয়ে বেশি গ্র্যান্ড স্লাম শিরোপা জয়ের মুকুটটা এক সময় তাঁর মাথায়ই উঠবে, এই তো! এর পক্ষে বাজি কিন্তু এখন ধরেই ফেলা যায়।

গত অক্টোবরে যখন ফ্রেঞ্চ ওপেন জিতলেন রাফায়েল নাদাল, আমার এক বন্ধুর মন খুব খারাপ। খেলাধুলা নিয়ে মনে কোনো প্রশ্ন জাগলেই রাত-বিরাতে ফোন পাই তার। সেদিন ভালো না লাগার অনুভূতিটাও ফোনে জানাল আমাকে, ‘কলেজ জীবন থেকেই ফেডেরার আমার কাছে টেনিসের শেষ কথা, তাঁকে কেউ ছাড়িয়ে যাবে এটা মেনে নিতে খুব কষ্ট হবে।’

‘কষ্ট পাওয়ার কী আছে, নাদালও তো লেজেন্ড।’ ভারি হওয়া মনটাকে একটু হালকা করার জন্য ফোন করেছিল বন্ধু। কিন্তু এই কথায় উল্টো দেখি রেগে টং। ‘এরপর তো বলবি, ফেডেরার একটাই ফ্রেঞ্চ ওপেন জিতেছে, আর নাদাল জিতেছে ১৩টা।' বলেই কেটে দিল ফোনটা।

কুড়িতম গ্র্যান্ড স্লাম হিসেবে নাদালের তেরতম ফ্রেঞ্চ ওপেন জয়ের পর থেকে আরও অনেকের মনেই ফেডেরারের সম্ভাব্য ‘সিংহাসন হারানো’র ব্যাপারটা দাগ কেটেছে। প্রত্যাবর্তনের অসাধারণ গল্প লিখে এবারের ফ্রেঞ্চ ওপেন জিতে ছেলেদের টেনিসে সবচেয়ে বেশি গ্র্যান্ড স্লাম জয়ের দৌড়ে জোরালোভাবেই আবির্ভূত হয়েছেন নোভাক জোকোভিচও।

নতুন প্রজন্মের জয়গান গাওয়া স্টেফানোস সিৎসিপাসকে হারিয়ে সর্বশেষ ফ্রেঞ্চ ওপেন জয়ের পর জোকোভিচের গ্র্যান্ড স্লাম সংখ্যা দাঁড়াল ১৯টি। একটি করে বেশি গ্র্যান্ড স্লাম জিতে সবার ওপরে যৌথভাবে রজার ফেডেরার (২০) ও রাফায়েল নাদাল (২০)। সার্বিয়ান জোকোভিচের যে ফর্ম, তাতে এই মুহূর্তে ‘আরও একটি করে গ্র্যান্ড স্লাম জিতবেন ফেডেরার ও নাদাল’, এর পক্ষে যতজন না বাজি ধরবেন, তার চেয়ে বেশি ধরবেন ‘জোকোভিচ আরও তিনটি গ্র্যান্ড স্লাম জিতবেন’-এর পক্ষে। আগের বছর ফ্রেঞ্চ ওপেন জিতে নাদাল ফেডেরারকে ছুঁয়ে ফেলার পরপরই সর্বোচ্চ গ্র্যান্ড স্লাম জয়ের রেকর্ডটির সম্ভাব্য দাবিদার হিসেবে টিম হেনম্যান রায় দিয়ে দিয়েছিলেন জোকোভিচের অনুকুলে। সাবেক ব্রিটিশ টেনিস খেলোয়াড় বলেছিলেন, ‘সবচেয়ে বেশি গ্র্যান্ড স্লামজয়ী হিসেবে কাউকে বেছে নিতে বললে আমি জোকোভিচের কথাই বলব।’

জয়ের হাসি। ২০২১ ফ্রেঞ্চ ওপেন ফাইনালে দারুণ এক প্রত্যাবর্তনের গল্প লেখার পর। ছবি: গেটি ইমেজেস

শুধু হেনম্যানই নন, টেনিস বোদ্ধাদের অনেকেরই বাজি হয়তো জোকোভিচের পক্ষেই। বয়স এবং পারফরম্যান্সের ধারাবাহিকতা-ই এগিয়ে রাখছে ৩৪ বছর বয়সী সার্বিয়ানকে। এ মাসেই পঁয়ত্রিশে পা রেখেছেন নাদাল। আগস্টে চল্লিশ ছোঁবেন ফেডেরার। যিনি ক্যারিয়ারের সোনালি সময় অনেকে আগেই পেছনে ফেলে এসেছেন। নাদালের ক্যারিয়ার-সূর্যটাও মধ্যগগন থেকে একটু একটু করে পশ্চিমাকাশের দিকে ঢলে পড়তে শুরু করেছে। কিন্তু জোকোভিচকে দেখুন, তিনি যেন যাচ্ছেন ক্যারিয়ারের সেরা সময়ের মধ্য দিয়ে। সর্বশেষ ১১টি গ্র্যান্ড স্লামের একটিতে দূর্ভাগ্যজনকভাবে ‘ডিসকোয়ালিফাইড’ হয়েছেন, বাকি ১০টির ৭টিরই শিরোপা তাঁর। এই ধারাবাহিকতা ধরে রাখতে পারলে আগামী দুই বছরেই নিজেকে নতুন উচ্চতায় তুলে নেবেন জোকোভিচ। সেটা এতই ওপরে যে, অনেকেই হয়তো অবাক বিস্ময়ে বলবেন, ‘জোকোভিচ যে এতগুলো গ্র্যান্ড স্লাম জিতবেন, তিন বছর আগেও ভাবা যায়নি!’

এক সময় রেকর্ডটির মালিক হিসেবে যাঁর নামটা প্রশ্নাতীত ছিল, সেই রজার ফেডেরারকেই এখন একটু ঝুঁকি নিয়ে সবচেয়ে বেশি গ্র্যান্ড স্লাম জয়ের দৌড়ে হিসাবের বাইরে রাখা যায়! বয়সের ভার আর চোট–দুই মিলিয়ে এমনিতেই তিনি কয়েক বছর ধরেই বেছে বেছে টুর্নামেন্ট খেলছেন। তাঁর স্বস্তির জায়গা যে উইম্বলডন, সেই ঘাসের কোর্টেও সর্বশেষ শিরোপাটি এসেছে ২০১৭ সালে। পরের বছর ফেডেরার অবশ্য অস্ট্রেলিয়ান ওপেন জিতেছেন, কিন্তু তারপর আর কোনো গ্র্যান্ড স্লামের ফাইনালেই উঠতে পারেননি। উইম্বলডন যেমন তাঁর স্বস্তির জায়গা, তেমনি ফ্রেঞ্চ ওপেন নাদালের। এবার সেখানেও নাদালকে হারিয়েছেন জোকোভিচ। বাকি দুই প্রবল প্রতিদ্বন্দ্বীর স্বস্তির জায়গায় তিনি হয়ে দাঁড়িয়েছেন অস্বস্তির কাঁটা!

ফেডেরার-নাদাল এখনো একটি শিরোপায় এগিয়ে, কিন্তু শেষ পর্যন্ত মুকুটটা মনে হচ্ছে জোকোভিচের মাথাতেই। ছবি: এটিপি টেনিস

ধরা যাক, লাল দুর্গ থেকে ‘বিতাড়িত’ নাদাল আবার ফিরে আসবেন এবং পরের তিন বছর ফ্রেঞ্চ ওপেন জিতবেন। তারপরও কি জোকোভিচকে আটকে রাখা যাবে! নিউইয়র্কের ফ্ল্যাশিং মিডো কিংবা অস্ট্রেলিয়ার মেলবোর্ন পার্ক—সবই যে জোকোভিচের কাছে 'নাদালের ফ্রেঞ্চ ওপেন’!

ফিটনেসও এগিয়ে রাখে জোকোভিচকে। হাঁটুর চোট প্রায়ই ভোগায় নাদালকে। চোট থেকে বাঁচার জন্য ফেডেরার তো খেলাই কমিয়ে দিয়েছেন। কিন্তু নাদালের মতো ঘন ঘন চোটে পড়ার ইতিহাস নেই জোকোভিচের। 

তাহলে হিসাবটা কী দাঁড়াল? সবাইকে ছাড়িয়ে সবচেয়ে বেশি গ্র্যান্ড স্লাম জোকোভিচই জিতছেন!

তারপরও সবচেয়ে বেশি গ্র্যান্ড স্লামজয়ী হিসেবে জোকোভিচকে মেনে নিতে কষ্ট হচ্ছে? তাহলে চোখ বুলিয়ে নিন কিছু পরিসংখ্যানে। ‘কষ্ট’ কিছুটা লাঘবও হতে পারে!

• সবগুলো গ্র্যান্ড স্লাম একাধিকবার করে জয়ের রেকর্ড নেই নাদাল কিংবা ফেডেরারের। এবারের ফ্রেঞ্চ ওপেন জিতে রয় এমারসন ও রড লেভারের পর ইতিহাসের তৃতীয় খেলোয়াড় হিসেবে যে কৃতিত্ব দেখালেন জোকোভিচ।

• ‘ক্লে কোর্টের রাজা’ নাদালকে লাল দূর্গে দুবার হারাতে পারেননি আর কেউ। যে কৃতিত্ব শুধুই জোকোভিচের।

• ১০০০ মাস্টার্স সিরিজে ফেডেরারের শিরোপা সংখ্যা যেখানে ২৮, জোকোভিচের ৩৬। সমান ৩৬টি শিরোপা নিয়ে এখানে অবশ্য তাঁর পাশেই নাদাল।

• ফেডেরার ও নাদালের সঙ্গে মুখোমুখি লড়াইয়েও বেশি জিতেছেন জোকোভিচ। ফেডেরারের বিপক্ষে রেকর্ড ২৭-২৩। নাদালের বিপক্ষে ৩০-২৮।

এবার নোভাক জোকোভিচকে সম্ভাব্য সবচেয়ে বেশি গ্র্যান্ড স্লামজয়ী হিসেবে মেনে নিতে আমার ওই বন্ধুরও মনে হয় খুব বেশি কষ্ট হবে না।

শেয়ার করুনঃ
আপনার মন্তব্য
আরও পড়ুন
Add
Ispahani Mirzapore Tea
×